রিপাবলিকানদের ত্রাতা পল রায়ান!

Published: 2016-04-11 14:46:37

News Image

 


যেকোনো মূল্যে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হওয়া ঠেকাতে এবার মাঠে নেমেছেন মার্কিন কংগ্রেসের স্পিকার পল রায়ান। তিনি নিজে মুখে বলে আসছেন প্রেসিডেন্ট হওয়ার ব্যাপারে তাঁর কোনো আগ্রহ নেই। স্পিকারের পদ গ্রহণের আগেও তিনি একই কথা বলেছিলেন। সব পক্ষের অনুরোধ ও সবাই তাঁর শর্তে রাজি হলে তিনি সে পদ গ্রহণে সম্মত বলে জানিয়েছিলেন। পর্যবেক্ষকেরা বলছেন, স্পিকার রায়ান সম্ভবত কৌশল অনুসরণ করছেন তাঁর দলের প্রেসিডেন্ট মনোনয়ন সংগ্রহে। 

গত সপ্তাহে রায়ান ৪৩ সেকেন্ডের একটি ভিডিও বার্তা প্রকাশ করেছেন। ভিডিওতে রাজনৈতিক নেতাদের দেশকে বিভক্ত করার বদলে ঐক্যবদ্ধ করার আহ্বান জানান তিনি। তবে সেখানে কারও নাম উল্লেখ করেননি। এরপরই নতুন করে জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে যায় যে তিনি প্রার্থী হতে আগ্রহী কি না।
কিন্তু পল রায়ানের লক্ষ্য যে ডোনাল্ড ট্রাম্প, এ ব্যাপারেও কোনো সন্দেহ নেই। ট্রাম্প ‘শ্বেত শ্রেষ্ঠত্ব’ বিষয়ে কোনো রাখঢাক ছাড়াই অবস্থান নিয়েছেন। তাঁর সেই বক্তব্যে রিপাবলিকান পার্টির বিরুদ্ধে আফ্রিকান-আমেরিকান ও হিস্পানিকদের সমালোচনামুখর করেছে। সাধারণ নির্বাচনে এদের উল্লেখযোগ্য সমর্থন ছাড়া সাফল্য অসম্ভব।
এখন প্রশ্ন উঠছে, হঠাৎ রায়ান কেন এমন ভিডিও প্রকাশ করলেন? নিউইয়র্ক টাইমস পত্রিকা কোন টিপ্পনী ছাড়াই জানিয়েছে, রিপাবলিকান প্রার্থীদের মধ্যে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে যখন নোংরা যুদ্ধ চলছে, তখন রায়ান রাজনৈতিক মঞ্চে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন। গত সপ্তাহে তিনি ইসরায়েলে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর সঙ্গে কথা বলেছেন। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের প্রধান মিত্র ইসরায়েল—সে কথা তিনি বারবার বলেছেন। সম্ভবত যুক্তরাষ্ট্রে শক্তিশালী ইহুদি লবির সমর্থন আদায় করতেই এ সফর। দেশে ফিরেই রীতিমতো নির্বাচনী প্রচারের স্টাইলে তাঁর ভিডিওটি প্রকাশ করা হয়। নিউইয়র্ক টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, রায়ানের অফিসের সদস্যরা ফিসফিস করে এ কথাও বলছেন, তিনি প্রয়োজনে নির্বাচনে প্রার্থী হতে প্রস্তুত।
রিপাবলিকান পার্টির নেতা ও মোটা অঙ্কের চাঁদা প্রদানকারী রায়ান প্রেসিডেন্ট পদপ্রার্থী হলে রীতিমতো হাঁপ ছেড়ে বাঁচেন সবাই। ডোনাল্ড ট্রাম্প হয়তো সরাসরি প্রয়োজনীয় ডেলিগেট সংগ্রহে সক্ষম হবেন না, ফলে আগামী জুলাই মাসে দলীয় কনভেনশনে মনোনয়ন প্রশ্নে রশি টানাটানি হবে। ট্রাম্প ও তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সিনেটর টেড ক্রুজ বলেছেন, তাঁদের মনোনয়ন না দেওয়ার জন্য দলীয় কর্তাব্যক্তিরা কোনো ষড়যন্ত্র করেন, তবে তাঁদের সমর্থকেরা বিনা প্রতিবাদে সে চেষ্টা মেনে নেবেন না। 
জুলাইয়ে দলীয় কনভেনশনে প্রার্থিতা চূড়ান্ত করার সময় কাঁদা ছোড়াছুড়ি হলে নির্বাচনে রিপাবলিকান পার্টি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। দলীয় নেতাদের অবশ্য তার চেয়েও বড় ভয় ট্রাম্পকে নিয়ে। এই বিলিয়নিয়ার ক্যাসিনো ব্যবসায়ী প্রার্থী হলে শুধু যে হোয়াইট হাউস খোয়াবেন তা-ই নয়, সিনেটে বর্তমানে তাদের যে সংখ্যাধিক্য আছে, তাও হাতছাড়া হবে তাদের। মাত্র চারটি আসন রিপাবলিকানদের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিতে পারলেই ডেমোক্র্যাটদের পক্ষে সিনেটের নিয়ন্ত্রণ ফিরে পাওয়া সম্ভব। দলের নেতারা মনে করেন, পল রায়ান দলের একমাত্র প্রার্থী হলে বিভক্তি ঠেকানো সম্ভব হবে। সম্ভবত সিনেটের পতনও ঠেকানো যাবে।
টাইমস জানিয়েছে, প্রতিনিধি পরিষদ ও সিনেটে নিজ দলের প্রার্থীদের কর্তৃত্ব ধরে রাখার ব্যাপারে পল রায়ান যথেষ্ট তৎপর। গত দুই মাসে তাঁর দুটি ই-মেইল আবেদন থেকে শুধু মার্চ মাসেই ১ লাখ ৮৫ হাজার ডলার চাঁদা উঠেছে।


 
 

Leave a Comment

 
  Please Login For Comments. Or Registration(Sign Up)