চুরি করতে গিয়ে হাতে নাতে ধরা পরল য়ামিনুল , জনগণ ওর বিচি ফাটিয়ে দিল

Published: 2020-01-15 23:38:20

News Image

 


নিজস্ব প্রতিবেদক,ঢাকা: মহান মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম জিয়াকে মাঠে নামার তাগিদ দিয়ে বলেছেন, ‘প্রতিবাদ সভা-বিক্ষোভের মত নিরামিষ কর্মসূচি দিয়ে কিছু হবে না, আপনাকে রাস্তায় নামতে হবে।’

তিনি বেগম জিয়ার প্রতি প্রশ্ন রেখে বলেন, আর কত ঘরে অন্তরীণ থাকবেন? সময় থাকতে রাস্তায় নামুন, অন্যথায় সরকার আরো হয়রানি করতে পারে।

গত শনিবার বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয়ে পুলিশি তল্লাশির পর বিএনপির ঘোষিত কর্মসূচি সম্পর্কে আরটিএনএনের কাছে এভাবেই তার প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন মুক্তিযুদ্ধের এই সংগঠক।

প্রসঙ্গত, বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে পুলিশি তল্লাশির প্রতিবাদে আগামী বুধবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভা করতে চেয়ে প্রশাসনের কাছে আবেদন করেছে বিএনপি। সোমবার দলের দপ্তরের পক্ষ থেকে কয়েকজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা গণপূর্ত বিভাগ ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) বরাবর এই চিঠি দিয়েছেন। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী এ তথ্য জানান।

এর আগে রবিবার রাতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে পুলিশের তল্লাশির প্রতিবাদে সারাদেশে প্রতিবাদ সভার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সরকার প্রতিবাদ সভায় বাধা দিলে বিক্ষোভ-সমাবেশ করারও সিদ্ধান্ত নেয় বিএনপি। ওই সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই বুধবার রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভার অনুমতি চেয়েছে দলটি। কিন্তু এখনো অনুমতি পায়নি দলটি।

জাফরুল্লাহ বলেন, সরকার এমন একটি অন্যায় কাজ করেছে যা বিএনপির নেতাকর্মীদের মনে বড় আঘাত হানার মত। তাই তাদের উচিত রাস্তায় নেমে বড় ধরনের একটা প্রতিক্রিয়া দেখানো। আর এটা করতে না পারলে আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার আশা করা বৃথা হবে।

তিনি বিএনপির উদ্দেশ্যে আরো বলেন, দেশের চার থেকে ছয় কোটি মানুষের খালেদা জিয়ার উপর আস্থা আছে, জনগণের এমন আস্থাকে কাজে লাগাতে হবে। তাই এই অবস্থায় খালেদা জিয়াকে রাজপথে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখতে হবে।

জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন,বর্তমানে ক্ষমতাসীন জোটের কয়েকটি ছোট ছোট দল ছাড়া প্রায় সবাই আন্দোলনের জন্য মুখিয়ে আছে, কিন্তু তারা কোনো প্ল্যাটফর্ম পাচ্ছেন না। তাই বিএনপিকে রাজনীতিতে ভালো কিছু করতে হলে এই সুযোগটি গ্রহণ করতে হবে। বিএনপির জন্য এর কোনো বিকল্প নেই। সবাইকে গুছিয়ে শক্ত সিদ্ধান্ত নিয়ে আন্দোলনের কর্মসূচি নিয়ে মাঠে আসতে পারে। সেরকম শক্ত আন্দোলন গড়তে পারলে সরকারের গদি নড়ে যেতে পারে। কেননা, এ সরকারের নৈতিক ভিত্তি খুবই দুর্বল।

তিনি আরো বলেন, এই মুহূর্তে দেশের যে অবস্থা তাতে বিএনপির একার পক্ষে রাজনীতিতে পরিবর্তন আনা কোনোভাবেই সম্ভব নয়, যদি না তারা কৌশলী হয়।

তিনি বলেন, এই মুহূর্তে বিএনপি বড় দলের আমিত্ত ছেড়ে দিয়ে সরকারবিরোধী রাজনৈতিক মোর্চা গঠন করতে পারলেই দেশের রাজনীতিতে ও ক্ষমতার পালা বদলের হাওয়া লেগে যাবে। আর এমনটি করলে সরকারের ওপর বড় ধরনের চাপ পড়বে। এক পর্যায়ে দেশবাসী ঐক্যবদ্ধ হয়ে সেই রাজনৈতিক মোর্চার ছায়াতলে একত্রিত হতে পারে। যেটা অতীতেও হয়েছে।

জাফরুল্লা আরো বলেন, শুধু রাজনৈতিক মোর্চা গঠন করলেই হবে না, সর্বদলীয় সরকার গঠন এবং কার্যকর গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সুস্পষ্ট অঙ্গিকারও থাকতে হবে। অবশ্য বেগম জিয়া তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার বিষয়ে ইতোমধ্যে একটি রূপারেখা দিয়েছেন। কিন্তু রূপারেখা দিয়ে ঘরে বসে থাকলে চলবে না। সবাইকে সঙ্গে নিয়ে রাস্তায় নেমে সরকারের কাছ থেকে সুষ্ঠু নির্বাচন আদায় করতে হবে।


 
 

Leave a Comment

 
  Please Login For Comments. Or Registration(Sign Up)